মসজিদ কেন্দ্রিক সোসাইটি

আজ জুমার বয়ানের বিষয় ছিল ‘আমাদের মডেল রাসূলুল্লাহ স.’, ইনশা’আল্লাহ আগামী কয়েক জুমা চলবে। প্রথম দিন হিসেবে রাসূল স. এঁর স্ত্রীদের সাথে তাঁর আচার-ব্যবহার আলোচিত হয়েছে। প্রাসঙ্গিকভাবে ইসলামে স্ত্রীর মর্যাদা ও স্বামী কর্তৃক যত্রতত্র তালাকের অপব্যবহারের বিষয়টি উঠে আসে, যা সম্পূর্ণভাবে রাসূলের স. আদর্শের পরিপন্থী।

জুমার পরে প্রশ্নোত্তর পর্বেও বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন আসে এবং আরো আলোচনা হয়। প্রাসঙ্গিকভাবে তখন বলা হয়, “আমাদের ভাইয়েরা ইউএস, ইউকে তে মাশা’আল্লাহ একেকটি মসজিদকে কেন্দ্র করে একেকটি মুসলিম সোসাইটি গড়ে তুলছেন। সেখানে অনেক জায়গায়ই ইমামদের দায়িত্ব কেবল পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ানো নয়; বরং, ফ্যামিলি কন্সাল্টিং ও ইয়ুথ কন্সাল্টিংও তাদের দায়িত্ব। এটি একেবারে নিয়োগের সময়ই উল্লেখ থাকে। প্রতিদিন অফিস টাইমে ইমাম সাহেব মসজিদের অফিস কক্ষে অবস্থান করবেন, এবং কারো পারিবারিক বিষয়ে পরামর্শের প্রয়োজন হলে তিনি এ সময়ে আসবেন। অনুরূপভাবে তরুণ প্রজন্মের ভেতর নানা প্রশ্ন ঘুরপাক খায়। তারাও তাদের প্রশ্ন নিয়ে চলে আসবে। ফলে পরিবারের সমস্যা কুরআন-সুন্নাহর আলোকে কীভাবে সমাধান করা যায়, তা সহজে জানা যাবে; তালাকের অপব্যবহার কমবে।”

ব্যাপারটা জেনে উপস্থিত মুসল্লিরা আমাদের মসজিদেও এমন কিছু থাকার আগ্রহ প্রকাশ করেন এবং প্রতিটি প্রশ্নোত্তর পর্বকে আরো দীর্ঘায়িত করে একই সাথে ফ্যামিলি ও ইয়ুথ কন্সাল্টিং দেয়ার পরামর্শ আসে।

আল্লাহ তায়ালা তাদের আকাঙ্ক্ষাকে বাস্তবায়ন করুন এবং এভাবে প্রতিটি পাড়া-মহল্লায় ইসলাম-চেতনা গড়ে তোলার তাওফীক দান করুন। আমীন।