মুফতী জহীর ভাইয়ের ক্যান্সার চিকিৎসায় দ্বীনের দাঈ ভাইয়ের পাশে দাঁড়াই….(2):

মুফতী জহীর ভাইয়ের ভিডিও দেখে চোখে পানি চলে আসল। প্রায় মাসখানেক আগে মুফতী জহীর ভাইয়ের একটি পোস্ট দেখি যে তিনি ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে খুব কষ্ট পাচ্ছেন। আরেকদিন হাসপাতালের বেডে শুয়ে একটি স্মৃতিকাতর পোস্ট লিখেন, যেখানে তিনি জীবনের বহু মুহূর্তকে মনে স্মরণ করছিলেন। পোস্টটা পড়ে আবেগতাড়িত না হওয়া অস্বাভাবিক। সাথে সাথে ইনবক্সে ভাইয়ের খোঁজ নিলাম। জানতে পারলাম কেমো দিতে হবে, ঋণগ্রস্ত আছেন ইত্যাদি। ভাইয়ের কাছ থেকে সব তথ্য সংগ্রহ করে প্রায় তিন সপ্তাহ আগে একটি ক্লোজড গ্রুপে একটি পোস্ট দেই, যেখানে অনেকে দোয়া করেছেন, কিন্তু বাস্তবে তেমন সাড়া পাওয়া যায় নি। এদিকে মুফতী জহীর ভাইয়ের অবস্থার অবনতি হতে থাকে।

গত ২১ তারিখ রাত ১১টায় তড়িঘড়ি করে পুরনো পোস্টটা একটু ঠিক করে পাবলিক পোস্ট দেই, এবং ঘুমাতে যাই। সকালে উঠে এক ভাইয়ের ম্যাসেজ পাই, তিনি আমার ব্যাংক একাউন্ট চান। অফিসের পথে থাকতে একটি ম্যাসেজ পাই যে তিনি এত টাকা পাঠিয়েছেন। তাড়াহুড়ায় পুরো ম্যাসেজ পড়িনি। অফিসে গিয়ে পুনরায় ম্যাসেজটি দেখে আবেগতাড়িত হয়ে যাই। একটি পোস্ট পড়ে এক ভাই অচেনা আরেক ভাইয়ের জন্য বেশ বড় অংক একসঙ্গে পাঠিয়ে দিয়েছেন! আলহামদুলিল্লাহ বলি।

একই দিন অফিসে থাকতেই আরেক ভাই (Sam Ahmmed) নক করেন। তিনি পোস্টটি পড়েছেন, এবং জহীর ভাইয়ের জন্য তার টিম নিয়ে ক্যাম্পেইন করার ইচ্ছে প্রকাশ করেন। তার পুরনো কিছু ক্যাম্পেইন দেখে আশ্বস্ত হই, জানতে পারি ততক্ষণে তাদের টিম মহাখালী হাসপাতালে রোগীর কাছে। এর পরের গল্প একটি ইতিহাস! মাত্র তিন দিনের মাথায় ২ লক্ষ ৫০ হাজারের বেশি টাকা উঠে আসে আলহামদুলিল্লাহ।

আল্লাহ তায়ালা সেই ক্যাম্পেইনের পেছনের ভাই Sam Ahmmed ও তার পুরো টিম, এবং সকল ডোনার ও ভলান্টিয়ারকে কবুল করুন।

আবারও প্রমাণিত হলো, কারো পাশে দাঁড়াতে/ কারো জন্য হাত বাড়াতে কেবল একটি ইচ্ছে শক্তির প্রয়োজন। আল্লাহর হাজারো বান্দা সদা প্রস্তুত, মানবতার খাতিরে মানুষের পাশে দাঁড়াতে।

জাযাকুমুল্লাহু খাইরান।

===

ক্যাম্পেইন ক্লোজিংয়ের বিস্তারিত পড়ুন: https://www.facebook.com/groups/AJourneyToHelpInternetEntrepreneurs/permalink/779870838876579/